ঢাকা ০১:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এ বছর ১৫ লাখ লোক বিদেশে পাঠানোর পরিকল্পনা : মন্ত্রী

  • আপডেট সময় : ০২:৩৯:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৩
  • / 73
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সরকার চলতি বছরে আরও ১৫ লাখ জনবল বিদেশ পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি।

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) সিলেটে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির সিলেট, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা বিভাগীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, এবার গ্রিসের সঙ্গেও নতুন করে চুক্তি করেছে সরকার। ইতালিতেও যাচ্ছে। লিবিয়াতেও খোলার একটা ব্যবস্থা করে নেবো। আগামী দুএক বছরের মধ্যে চীনসহ আরও কয়েকটি দেশে শ্রমিক সংকট দেখা দিবে। সরকার এ সুযোগ কাজে লাগাবে।

তবে আমাদের বেআইনিভাবে যাওয়ার প্রবণতা বিষয়টি তুলে ধরে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, যারা চাকরিতে যান, তারা ওখানে গিয়ে অন্যত্র পালিয়ে যান। এ জন্য দেশের বদনাম হয়।

এ সময় বিদেশে যাওয়ার আগে কিছু না কিছু দক্ষতা নিয়ে যাওয়ার তাগিদ দেন মন্ত্রী। তা না হলে সাধারণ শ্রমিক হিসেবেই কাজ করতে হয়।

তিনি বলেন, বিদেশে যাওয়ার আগে অন্তত কিছু না কিছু শিখে গেলে বেতন ডাবল হয়ে যায়। আর ভাষা যদি শিখে নেন, আরও ভাল হয়, বিশেষ করে কোরিয়ান ও জাপানিজ ভাষা। আর না হয় নার্সিংয়ে যাও।

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১৬ বিলিয়ন ডলার, ২০১৯-২০ অর্থবছরে ১৮ বিলিয়ন ডলার, ২০২০-২১ অর্থবছরে ২৪ বিলিয়ন ডলার ও ২০২১-২২ অর্থবছরে ২২ বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স দেশে এসেছে।

২০২০-২১ অর্থবছর থেকে ২০২১-২২ অর্থবছরে রেমিটেন্স কমে যাওয়া নিয়ে তিনি বলেন, ওই সময় করোনার কারণে অনেকে সবকিছু গুটিয়ে দেশে ফিরে এসেছিলেন। যে কারণে রেমিটেন্সেরও পরিমাণ কমে গিয়ে ছিল। এখন আবারও প্রবাসীরা বিভিন্ন দেশে তাদের পুরনো কর্মস্থলে ফিরে যাচ্ছেন। তারা গিয়ে রেমিটেন্স পাঠানো শুরু করলে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

আগামী জুন মাসের মধ্যে রেমিটেন্স আগের বছরের সমপরিমাণ অর্থাৎ ২২ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ডিপ্লোমা প্রকৌশল সমিতির কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সিলেটের সহ-সভাপতি মো. উজ্জ্বল বখতর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হোসেন মজুমদার, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন-২) সরোজ কুমার নাথ, আইডিইউবির সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

এ বছর ১৫ লাখ লোক বিদেশে পাঠানোর পরিকল্পনা : মন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:৩৯:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৩

সরকার চলতি বছরে আরও ১৫ লাখ জনবল বিদেশ পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি।

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) সিলেটে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতির সিলেট, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লা বিভাগীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, এবার গ্রিসের সঙ্গেও নতুন করে চুক্তি করেছে সরকার। ইতালিতেও যাচ্ছে। লিবিয়াতেও খোলার একটা ব্যবস্থা করে নেবো। আগামী দুএক বছরের মধ্যে চীনসহ আরও কয়েকটি দেশে শ্রমিক সংকট দেখা দিবে। সরকার এ সুযোগ কাজে লাগাবে।

তবে আমাদের বেআইনিভাবে যাওয়ার প্রবণতা বিষয়টি তুলে ধরে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, যারা চাকরিতে যান, তারা ওখানে গিয়ে অন্যত্র পালিয়ে যান। এ জন্য দেশের বদনাম হয়।

এ সময় বিদেশে যাওয়ার আগে কিছু না কিছু দক্ষতা নিয়ে যাওয়ার তাগিদ দেন মন্ত্রী। তা না হলে সাধারণ শ্রমিক হিসেবেই কাজ করতে হয়।

তিনি বলেন, বিদেশে যাওয়ার আগে অন্তত কিছু না কিছু শিখে গেলে বেতন ডাবল হয়ে যায়। আর ভাষা যদি শিখে নেন, আরও ভাল হয়, বিশেষ করে কোরিয়ান ও জাপানিজ ভাষা। আর না হয় নার্সিংয়ে যাও।

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১৬ বিলিয়ন ডলার, ২০১৯-২০ অর্থবছরে ১৮ বিলিয়ন ডলার, ২০২০-২১ অর্থবছরে ২৪ বিলিয়ন ডলার ও ২০২১-২২ অর্থবছরে ২২ বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স দেশে এসেছে।

২০২০-২১ অর্থবছর থেকে ২০২১-২২ অর্থবছরে রেমিটেন্স কমে যাওয়া নিয়ে তিনি বলেন, ওই সময় করোনার কারণে অনেকে সবকিছু গুটিয়ে দেশে ফিরে এসেছিলেন। যে কারণে রেমিটেন্সেরও পরিমাণ কমে গিয়ে ছিল। এখন আবারও প্রবাসীরা বিভিন্ন দেশে তাদের পুরনো কর্মস্থলে ফিরে যাচ্ছেন। তারা গিয়ে রেমিটেন্স পাঠানো শুরু করলে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

আগামী জুন মাসের মধ্যে রেমিটেন্স আগের বছরের সমপরিমাণ অর্থাৎ ২২ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ডিপ্লোমা প্রকৌশল সমিতির কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সিলেটের সহ-সভাপতি মো. উজ্জ্বল বখতর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হোসেন মজুমদার, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন-২) সরোজ কুমার নাথ, আইডিইউবির সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান।