ঢাকা ০১:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দীর্ঘদিনের সঙ্গীকে কারাগারেই বিয়ে করলেন অ্যাসাঞ্জ

  • আপডেট সময় : ০৮:২০:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ ২০২২
  • / 614
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দীর্ঘদিনের সঙ্গী স্টেলা মরিসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন আলোচিত ওয়েবসাইট উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত বেলমার্শ কারাগারে ব্যাপক নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বুধবার (২৩ মার্চ) তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

উচ্চ নিরাপত্তার এই কারাগারে অনুষ্ঠিত বিয়েতে মাত্র চারজন অতিথি অংশ নেওয়ার অনুমতি পেয়েছিলেন। এর বাইরে উপস্থিত ছিলেন দু’জন সাক্ষী ও দু’জন নিরাপত্তাকর্মী। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বরে বন্দি অ্যাসাঞ্জকে কারাগারের মধ্যেই বাগদত্তা স্টেলা মরিসকে বিয়ে করার অনুমতি দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। যুক্তরাজ্যের বিবাহ আইন ১৯৮৩-এর আওতায় কারাগারে বিয়ের জন্য আবেদনের সুযোগ পান বন্দিরা। কোনো বন্দির আবেদন মঞ্জুর হলে সম্পূর্ণ খরচ মিটিয়ে বিয়ে করতে পারেন তারা।

বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর বেলমার্শ কারাগারের গেটের বাইরে অ্যাসাঞ্জের স্ত্রী স্টেলা মরিস বলেন, ‘আমি খুব খুশি এবং খুবই দুঃখিত। আমি জুলিয়ানকে মন থেকে ভালোবাসি। তিনি যদি এখন এখানে (কারাগারের বাইরে) থাকতেন!’

অবশ্য, লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসে অবস্থানের সময় দুই সন্তানের বাবা-মা হন অ্যাসাঞ্জ-মরিস। ২০১১ সালে অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীর দলে যোগ দেন মরিস, তাদের মধ্যে সম্পর্ক শুরু হয় ২০১৫ সালে। আর ২০২২ সালে এসে এক-অপরের জীবনসঙ্গী হলেন তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

দীর্ঘদিনের সঙ্গীকে কারাগারেই বিয়ে করলেন অ্যাসাঞ্জ

আপডেট সময় : ০৮:২০:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ ২০২২

দীর্ঘদিনের সঙ্গী স্টেলা মরিসের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন আলোচিত ওয়েবসাইট উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত বেলমার্শ কারাগারে ব্যাপক নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বুধবার (২৩ মার্চ) তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

উচ্চ নিরাপত্তার এই কারাগারে অনুষ্ঠিত বিয়েতে মাত্র চারজন অতিথি অংশ নেওয়ার অনুমতি পেয়েছিলেন। এর বাইরে উপস্থিত ছিলেন দু’জন সাক্ষী ও দু’জন নিরাপত্তাকর্মী। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বরে বন্দি অ্যাসাঞ্জকে কারাগারের মধ্যেই বাগদত্তা স্টেলা মরিসকে বিয়ে করার অনুমতি দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। যুক্তরাজ্যের বিবাহ আইন ১৯৮৩-এর আওতায় কারাগারে বিয়ের জন্য আবেদনের সুযোগ পান বন্দিরা। কোনো বন্দির আবেদন মঞ্জুর হলে সম্পূর্ণ খরচ মিটিয়ে বিয়ে করতে পারেন তারা।

বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর বেলমার্শ কারাগারের গেটের বাইরে অ্যাসাঞ্জের স্ত্রী স্টেলা মরিস বলেন, ‘আমি খুব খুশি এবং খুবই দুঃখিত। আমি জুলিয়ানকে মন থেকে ভালোবাসি। তিনি যদি এখন এখানে (কারাগারের বাইরে) থাকতেন!’

অবশ্য, লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসে অবস্থানের সময় দুই সন্তানের বাবা-মা হন অ্যাসাঞ্জ-মরিস। ২০১১ সালে অ্যাসাঞ্জের আইনজীবীর দলে যোগ দেন মরিস, তাদের মধ্যে সম্পর্ক শুরু হয় ২০১৫ সালে। আর ২০২২ সালে এসে এক-অপরের জীবনসঙ্গী হলেন তারা।