ঢাকা ০৫:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাইজার পরিস্থিতির সুযোগ নিচ্ছে ওয়াগনার: ব্লিংকেন

  • আপডেট সময় : ১২:০৪:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৯ অগাস্ট ২০২৩
  • / 115
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রাশিয়ার ভাড়াটে গোষ্ঠী ওয়াগনার নাইজারের অস্থিতিশীলতার ‘সুযোগ নিচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।  তবে ব্লিংকেন বলেন, তিনি মনে করেন না যে রাশিয়া বা ওয়াগনার নাইজারের অভ্যুত্থানে প্ররোচিত করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি যা ঘটেছে, এবং নাইজারে যা ঘটছে তা- রাশিয়া বা ওয়াগনার দ্বারা প্ররোচিত হয়নি। তবে…তারা এটির সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা করছে। ’

বিবিসির ফোকাস অন আফ্রিকা প্রোগ্রামকে মার্কিন মন্ত্রী বলেন, তবে সাহেল অঞ্চলের কিছু অংশে এই গোষ্ঠীটির (ওয়াগনার) ‘নিজেকে প্রকাশ করা’ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চিন্তিত ছিল।

‘এই ওয়াগনার গোষ্ঠীর সৈন্যরা বিভিন্ন জায়গায় চলে গেছে। তারা মৃত্যু, ধ্বংস এবং শোষণ অনুসরণ করেছে। এতে করে নিরাপত্তাহীনতা কমেনি, বরং বেড়েছে। ’

তিনি যোগ করেছেন, ‘অন্যান্য দেশে যা ঘটেছিল তা পুনরাবৃত্তি ছিল। সেখানে তারা খারাপ জিনিসগুলো ছাড়া আর কিছুই নিয়ে আসেনি। ’

গত ২৬ জুলাই রক্তপাতবিহীন অভ্যুত্থান ঘটায় নাইজারের জান্তা। এরপর পূর্ব আফ্রিকার ১৫ দেশের অর্থনীতির জোট ইকোয়াস জান্তাকে ক্ষমতা ছাড়তে ৬ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল— ক্ষমতা না ছাড়লে সামরিক অভিযান  চালানোর হুমকিও দেয় তারা। তবে এসব হুমকির মুখে পিছপা হয়নি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা। এর বদলে সোমবার তারা দেশটির আকাশপথ বন্ধ করে দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

নাইজার পরিস্থিতির সুযোগ নিচ্ছে ওয়াগনার: ব্লিংকেন

আপডেট সময় : ১২:০৪:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৯ অগাস্ট ২০২৩

রাশিয়ার ভাড়াটে গোষ্ঠী ওয়াগনার নাইজারের অস্থিতিশীলতার ‘সুযোগ নিচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।  তবে ব্লিংকেন বলেন, তিনি মনে করেন না যে রাশিয়া বা ওয়াগনার নাইজারের অভ্যুত্থানে প্ররোচিত করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি যা ঘটেছে, এবং নাইজারে যা ঘটছে তা- রাশিয়া বা ওয়াগনার দ্বারা প্ররোচিত হয়নি। তবে…তারা এটির সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা করছে। ’

বিবিসির ফোকাস অন আফ্রিকা প্রোগ্রামকে মার্কিন মন্ত্রী বলেন, তবে সাহেল অঞ্চলের কিছু অংশে এই গোষ্ঠীটির (ওয়াগনার) ‘নিজেকে প্রকাশ করা’ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চিন্তিত ছিল।

‘এই ওয়াগনার গোষ্ঠীর সৈন্যরা বিভিন্ন জায়গায় চলে গেছে। তারা মৃত্যু, ধ্বংস এবং শোষণ অনুসরণ করেছে। এতে করে নিরাপত্তাহীনতা কমেনি, বরং বেড়েছে। ’

তিনি যোগ করেছেন, ‘অন্যান্য দেশে যা ঘটেছিল তা পুনরাবৃত্তি ছিল। সেখানে তারা খারাপ জিনিসগুলো ছাড়া আর কিছুই নিয়ে আসেনি। ’

গত ২৬ জুলাই রক্তপাতবিহীন অভ্যুত্থান ঘটায় নাইজারের জান্তা। এরপর পূর্ব আফ্রিকার ১৫ দেশের অর্থনীতির জোট ইকোয়াস জান্তাকে ক্ষমতা ছাড়তে ৬ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল— ক্ষমতা না ছাড়লে সামরিক অভিযান  চালানোর হুমকিও দেয় তারা। তবে এসব হুমকির মুখে পিছপা হয়নি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা। এর বদলে সোমবার তারা দেশটির আকাশপথ বন্ধ করে দেন।