ঢাকা ০১:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাওয়ার্ড পেলেন লিটন আহমেদ

  • আপডেট সময় : ০৫:৩১:১৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ মে ২০২২
  • / 348
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ইউএস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রবাসী বাংলাদেশি মোহাম্মদ লিটন আহমেদ। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের পক্ষে তার হাতে সার্টিফিকেট এবং পদক তুলে দেন জাতিসংঘে মার্কিন দূত ড. সীমা কাতনায়া। লিটন আহমেদকে এই সম্মাননা প্রদানকালে ড. কাতনায়া বলেন, এটি অত্যন্ত সম্মানজনক একটি পদক। তার হাতে এটি তুলে দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত গর্বিত। এই বিশেষ সম্মাননা অর্জন করা মোহাম্মদ লিটন আহমেদ যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হওয়ার পর প্রথমে কিছুদিন চাকুরী করেন। এরপর ব্যবসা শুরু করেন। ইউএস বিডি মাল্টিন্যাশনাল ইন্ক, ইউএসবিডি গ্রুপ, ইউএসবিডি শপিং, আমদানি-রপ্তানি সহ অন্যান্য ব্যবসায় যুক্ত আছেন তিনি। এছাড়াও বিগত ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে স্থানীয় মূলধারার সংগঠনসহ বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কাজ করে চলেছেন লিটন আহমেদ। অসংখ্য সমাজ উন্নয়নমূলক কাজে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অবদান রেখেছেন তিনি। পাশাপাশি মানবাধিকার কার্যক্রম, সামাজিক ন্যায্যতা ইত্যাদি বিষয়েও বেশ সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে তার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে চলেছেন লিটন আহমেদ। তার কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ তাকে প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম এচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড-এ ভূষিত করা হয়। এই সম্মাননা পেয়ে তিনি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘এটি আমার জন্য এক বিশেষ পুরস্কার৷ আমি কৃতজ্ঞ। এখন থেকে কমিউনিটি ও দেশের প্রতি আমার দায়িত্ব আরো বেড়ে গেলো। এই সম্মাননা আমাকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে এবং মানুষের কল্যাণে আরো আন্তরিক ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করতে আমাকে অনেক উৎসাহ যোগাবে।’ এসময় তিনি মিডিয়া কর্মী সহ কমিউনিটির সকলকে আন্তুরিক ধন্যবাদ জানান এবং সম্মাননা প্রাপ্তিতে সকলের অবদান রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড তাদেরকে দেয়া হয়, যারা যুক্তরাষ্ট্রের সমৃদ্ধির জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এই সম্মাননা মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে এক বিশেষ পুরস্কার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাওয়ার্ড পেলেন লিটন আহমেদ

আপডেট সময় : ০৫:৩১:১৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৯ মে ২০২২
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ইউএস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রবাসী বাংলাদেশি মোহাম্মদ লিটন আহমেদ। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের পক্ষে তার হাতে সার্টিফিকেট এবং পদক তুলে দেন জাতিসংঘে মার্কিন দূত ড. সীমা কাতনায়া। লিটন আহমেদকে এই সম্মাননা প্রদানকালে ড. কাতনায়া বলেন, এটি অত্যন্ত সম্মানজনক একটি পদক। তার হাতে এটি তুলে দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত গর্বিত। এই বিশেষ সম্মাননা অর্জন করা মোহাম্মদ লিটন আহমেদ যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হওয়ার পর প্রথমে কিছুদিন চাকুরী করেন। এরপর ব্যবসা শুরু করেন। ইউএস বিডি মাল্টিন্যাশনাল ইন্ক, ইউএসবিডি গ্রুপ, ইউএসবিডি শপিং, আমদানি-রপ্তানি সহ অন্যান্য ব্যবসায় যুক্ত আছেন তিনি। এছাড়াও বিগত ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে স্থানীয় মূলধারার সংগঠনসহ বিভিন্ন সমাজকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কাজ করে চলেছেন লিটন আহমেদ। অসংখ্য সমাজ উন্নয়নমূলক কাজে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অবদান রেখেছেন তিনি। পাশাপাশি মানবাধিকার কার্যক্রম, সামাজিক ন্যায্যতা ইত্যাদি বিষয়েও বেশ সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে তার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে চলেছেন লিটন আহমেদ। তার কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ তাকে প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম এচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড-এ ভূষিত করা হয়। এই সম্মাননা পেয়ে তিনি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ‘এটি আমার জন্য এক বিশেষ পুরস্কার৷ আমি কৃতজ্ঞ। এখন থেকে কমিউনিটি ও দেশের প্রতি আমার দায়িত্ব আরো বেড়ে গেলো। এই সম্মাননা আমাকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে এবং মানুষের কল্যাণে আরো আন্তরিক ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করতে আমাকে অনেক উৎসাহ যোগাবে।’ এসময় তিনি মিডিয়া কর্মী সহ কমিউনিটির সকলকে আন্তুরিক ধন্যবাদ জানান এবং সম্মাননা প্রাপ্তিতে সকলের অবদান রয়েছে বলে উল্লেখ করেন। উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্সিয়াল লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড তাদেরকে দেয়া হয়, যারা যুক্তরাষ্ট্রের সমৃদ্ধির জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এই সম্মাননা মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে এক বিশেষ পুরস্কার।