মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসী গ্রেপ্তার

  • আপডেট সময় : ১২:২৯:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩
  • / 63
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মালয়েশিয়ার মানজুংয়ে ১৪ বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার (১১ আগস্ট) দেশটির অভিবাসন বিভাগ অপস সাপু, সেলেরা, কুটিপ ও বেলেঞ্জা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

মালয়েশিয়ার দ্য সান ডেইলির খবরে বলা হয়েছে, অভিযানে শিশুসহ ১০৪ জনকে আটকের পর ৯০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অভিবাসন বিভাগের পরিচালক হাফজান হোসাইনি।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট থেকে ছয় ঘণ্টা অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ও ওয়ার্ক পারমিটের মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় ৬২ পুরুষ, ২৩ নারী ও পাঁচ শিশুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারদের মধ্যে ৬৬ জন ইন্দোনেশিয়ার, ১৪ জন বাংলাদেশের, পাঁচজন মিয়ানমারের, দুজন নেপালের এবং ভারত ও পাকিস্তানের একজন করে নাগরিক রয়েছেন। অভিবাসন আইন, মানবপাচার ও চোরাকারবারি রোধ আইন এবং পাসপোর্ট আইনে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

হাফজান হোসাইনি বলেন, আমরা বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধেও তদন্ত করব, যারা অবৈধ অভিবাসীদের থাকার সুযোগ দিয়েছেন। আমরা জনসাধারণকে অনুরোধ করব আমাদের সঙ্গে তথ্য ভাগাভাগি করতে, যাতে সহজে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসী গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ১২:২৯:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩

মালয়েশিয়ার মানজুংয়ে ১৪ বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার (১১ আগস্ট) দেশটির অভিবাসন বিভাগ অপস সাপু, সেলেরা, কুটিপ ও বেলেঞ্জা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

মালয়েশিয়ার দ্য সান ডেইলির খবরে বলা হয়েছে, অভিযানে শিশুসহ ১০৪ জনকে আটকের পর ৯০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অভিবাসন বিভাগের পরিচালক হাফজান হোসাইনি।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিট থেকে ছয় ঘণ্টা অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ও ওয়ার্ক পারমিটের মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় ৬২ পুরুষ, ২৩ নারী ও পাঁচ শিশুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারদের মধ্যে ৬৬ জন ইন্দোনেশিয়ার, ১৪ জন বাংলাদেশের, পাঁচজন মিয়ানমারের, দুজন নেপালের এবং ভারত ও পাকিস্তানের একজন করে নাগরিক রয়েছেন। অভিবাসন আইন, মানবপাচার ও চোরাকারবারি রোধ আইন এবং পাসপোর্ট আইনে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

হাফজান হোসাইনি বলেন, আমরা বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধেও তদন্ত করব, যারা অবৈধ অভিবাসীদের থাকার সুযোগ দিয়েছেন। আমরা জনসাধারণকে অনুরোধ করব আমাদের সঙ্গে তথ্য ভাগাভাগি করতে, যাতে সহজে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া যায়।