ঢাকা ০১:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আরও কর্মী নিতে চায় ইতালি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • আপডেট সময় : ০৭:৩৪:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই ২০২৩
  • / 71
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কৃষি এবং পর্যটন খাতে কর্মী নিতে চায় ইতালি। তবে দেশটি অবৈধ কোনো কর্মী নিতে রাজি নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ‘দেশ এগিয়ে চলেছে’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসব শেষে এসব কথা জানান মন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতালি সফরে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এ প্রসঙ্গে মোমেন বলেন, ইতালির প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে যে সম্মান দিয়েছেন, এটা দুর্বল; রাষ্ট্রীয় সফরের মতো। উনাকে (বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে) রিসিভ করেছেন, গার্ড অফ অনার দিয়েছেন। ঘণ্টাখানেক বৈঠক করে খুব আন্তরিকতার সঙ্গে আলাপ করেছেন। খুবই ভালো আলোচনা হয়েছে।

বৈঠকে শ্রম ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সেখানে আলোচনায় এসেছে লেবার ইস্যু। আমাদের অনেক প্রবাসী ওখানে আছেন, অনেকে বৈধ আবার অনেকে অবৈধ। তারা বৈধের পরিমাণ আরও বাড়াবে বলেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বৈধ-অবৈধ যারাই আছে তারা আপনার এবং আমার দেশের জন্য অবদান রাখছে। যারা অবৈধ আছে, তাদের মধ্যে যারা ভালো তাদের দেখেশুনে রেখে দেন।

ইতালিতে অবৈধ উপায়ে বাংলাদেশিরা প্রবেশ করুক সেটা ঢাকাও চায় না বলে বার্তা দেওয়া হয়েছে রোমকে। এ প্রসঙ্গে মোমেন বলেন, কৃষিতে তারা অনেক লেবার নেবে, ট্যুরিজমে অনেক লোক নেবে। তবে বৈধ। তারা অবৈধ লোক চায় না। আমরা বলেছি, আমরা চাই বৈধভাবে লোক যাক। আমরা চাই না অবৈধভাবে সাগর দিয়ে লোক মারা যাক।

দুই সরকারপ্রধানের বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান মোমেন। কর্মী প্রের‌ণ নি‌য়ে এক‌টি সম‌ঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করার বিষ‌য়ে উভয়পক্ষ কাজ কর‌ার কথাও জানান মন্ত্রী।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

আরও কর্মী নিতে চায় ইতালি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৭:৩৪:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই ২০২৩

কৃষি এবং পর্যটন খাতে কর্মী নিতে চায় ইতালি। তবে দেশটি অবৈধ কোনো কর্মী নিতে রাজি নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ‘দেশ এগিয়ে চলেছে’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসব শেষে এসব কথা জানান মন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতালি সফরে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এ প্রসঙ্গে মোমেন বলেন, ইতালির প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে যে সম্মান দিয়েছেন, এটা দুর্বল; রাষ্ট্রীয় সফরের মতো। উনাকে (বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে) রিসিভ করেছেন, গার্ড অফ অনার দিয়েছেন। ঘণ্টাখানেক বৈঠক করে খুব আন্তরিকতার সঙ্গে আলাপ করেছেন। খুবই ভালো আলোচনা হয়েছে।

বৈঠকে শ্রম ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সেখানে আলোচনায় এসেছে লেবার ইস্যু। আমাদের অনেক প্রবাসী ওখানে আছেন, অনেকে বৈধ আবার অনেকে অবৈধ। তারা বৈধের পরিমাণ আরও বাড়াবে বলেছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বৈধ-অবৈধ যারাই আছে তারা আপনার এবং আমার দেশের জন্য অবদান রাখছে। যারা অবৈধ আছে, তাদের মধ্যে যারা ভালো তাদের দেখেশুনে রেখে দেন।

ইতালিতে অবৈধ উপায়ে বাংলাদেশিরা প্রবেশ করুক সেটা ঢাকাও চায় না বলে বার্তা দেওয়া হয়েছে রোমকে। এ প্রসঙ্গে মোমেন বলেন, কৃষিতে তারা অনেক লেবার নেবে, ট্যুরিজমে অনেক লোক নেবে। তবে বৈধ। তারা অবৈধ লোক চায় না। আমরা বলেছি, আমরা চাই বৈধভাবে লোক যাক। আমরা চাই না অবৈধভাবে সাগর দিয়ে লোক মারা যাক।

দুই সরকারপ্রধানের বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান মোমেন। কর্মী প্রের‌ণ নি‌য়ে এক‌টি সম‌ঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করার বিষ‌য়ে উভয়পক্ষ কাজ কর‌ার কথাও জানান মন্ত্রী।