ঢাকা ০৮:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রমিক নিয়োগে ভিসানীতি শিথিল করলো ব্রিটেন

  • আপডেট সময় : ১০:০৯:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩
  • / 84
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কয়েকটি খাতে তীব্র শ্রমিক সংকট দেখা দেওয়ায় বিদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করেছে যুক্তরাজ্য। নির্মাণ খাতে শ্রমিক সংকট ভয়াবহ আকার ধারণ করায় নতুন করে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে দেশটির সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে।

সোমবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের শ্রমিক ঘাটতি পেশার তালিকায় নির্মাণখাতের কিছু কাজকে যুক্ত করা হয়েছে। এর ফলে দেশটির নির্মাণ শিল্পের সাথে জড়িতরা বিদেশ থেকে আরও সহজে শ্রমিক আনতে পারবেন।

নিয়ম কানুন শিথিল করায় ইট প্রস্তুতকারী শ্রমিক, রাজমিস্ত্রি এবং ছাদ, ছাদের টাইলস ও স্লেটার্সের কাজ করা শ্রমিক, রং মিস্ত্রি, যোগালি এবং প্লাস্টারকারীরা সস্তার ভিসায় অধিক উপকৃত হবেন। এসব খাতে তীব্র শ্রম সংকটে ভুগছে ব্রিটেন। নিয়োগকর্তারা বিদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের জন্যও আগ্রহী। যে কারণে দেশটির সরকার ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করেছে।

তবে ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগের এই উদ্যোগ দেশটির প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের রাজনৈতিক দল কনজারভেটিভ পার্টির জন্য মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ গত এক দশক ধরে দেশটিতে অভিবাসনের হার কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে কনজারভেটিভ পার্টি।

সোমবার এক বিবৃতিতে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলেছে, ভিসা বিধিতে শ্রমিকের নতুন কাজ যুক্ত করায় তা মূল জাতীয় অবকাঠামো সরবরাহে সহায়তা এবং সংশ্লিষ্ট শিল্পের বৃদ্ধিকে চাঙ্গা করবে।

দেশটির স্বতন্ত্র অভিবাসন উপদেষ্টা কমিটি গত মার্চে সব নির্মাণ কাজকে ঘাটতি পেশার তালিকায় যুক্ত করার সুপারিশ করেছিল। এই তালিকায় ইতোমধ্যে পরিচর্যা কর্মী, সিভিল ইঞ্জিনিয়ার এবং ল্যাবরেটরি টেকনিশিয়ান ও স্বাস্থ্যসেবার সাথে জড়িত কর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গত মে মাসে প্রকাশিত দেশটির সরকারি এক পরিসংখ্যানে বলা হয়, ব্রিটেনে নেট অভিবাসন গত বছর রেকর্ড সর্বোচ্চ ৬ লাখ ৬ হাজারে পৌঁছেছে। অভিবাসীদের স্রোত কমাতে ঋষি সুনাক নেতৃত্বাধীন দেশটির সরকার নতুন করে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে।

ব্রেক্সিটের সমালোচকরা বলছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের প্রস্থান শ্রমিক সংকটকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। কারণ ইইউ নাগরিকরা আর আগের মতো ব্রিটেনে কাজ করার জন্য ভিসা ছাড়া ঢুকতে পারেন না।

দেশটির সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ব্রিটেনে বিদেশি শ্রমিক হিসেবে আবেদনকারীদের একজন নিয়োগকর্তার কাছ থেকে চাকরির অফার এবং ইংরেজি ভাষার দক্ষতার শর্ত অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

শ্রমিক নিয়োগে ভিসানীতি শিথিল করলো ব্রিটেন

আপডেট সময় : ১০:০৯:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩

কয়েকটি খাতে তীব্র শ্রমিক সংকট দেখা দেওয়ায় বিদেশি কর্মী নিয়োগের জন্য ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করেছে যুক্তরাজ্য। নির্মাণ খাতে শ্রমিক সংকট ভয়াবহ আকার ধারণ করায় নতুন করে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে দেশটির সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে।

সোমবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের শ্রমিক ঘাটতি পেশার তালিকায় নির্মাণখাতের কিছু কাজকে যুক্ত করা হয়েছে। এর ফলে দেশটির নির্মাণ শিল্পের সাথে জড়িতরা বিদেশ থেকে আরও সহজে শ্রমিক আনতে পারবেন।

নিয়ম কানুন শিথিল করায় ইট প্রস্তুতকারী শ্রমিক, রাজমিস্ত্রি এবং ছাদ, ছাদের টাইলস ও স্লেটার্সের কাজ করা শ্রমিক, রং মিস্ত্রি, যোগালি এবং প্লাস্টারকারীরা সস্তার ভিসায় অধিক উপকৃত হবেন। এসব খাতে তীব্র শ্রম সংকটে ভুগছে ব্রিটেন। নিয়োগকর্তারা বিদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের জন্যও আগ্রহী। যে কারণে দেশটির সরকার ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করেছে।

তবে ভিসা নিয়ম কানুন শিথিল করে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগের এই উদ্যোগ দেশটির প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের রাজনৈতিক দল কনজারভেটিভ পার্টির জন্য মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ গত এক দশক ধরে দেশটিতে অভিবাসনের হার কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে কনজারভেটিভ পার্টি।

সোমবার এক বিবৃতিতে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলেছে, ভিসা বিধিতে শ্রমিকের নতুন কাজ যুক্ত করায় তা মূল জাতীয় অবকাঠামো সরবরাহে সহায়তা এবং সংশ্লিষ্ট শিল্পের বৃদ্ধিকে চাঙ্গা করবে।

দেশটির স্বতন্ত্র অভিবাসন উপদেষ্টা কমিটি গত মার্চে সব নির্মাণ কাজকে ঘাটতি পেশার তালিকায় যুক্ত করার সুপারিশ করেছিল। এই তালিকায় ইতোমধ্যে পরিচর্যা কর্মী, সিভিল ইঞ্জিনিয়ার এবং ল্যাবরেটরি টেকনিশিয়ান ও স্বাস্থ্যসেবার সাথে জড়িত কর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গত মে মাসে প্রকাশিত দেশটির সরকারি এক পরিসংখ্যানে বলা হয়, ব্রিটেনে নেট অভিবাসন গত বছর রেকর্ড সর্বোচ্চ ৬ লাখ ৬ হাজারে পৌঁছেছে। অভিবাসীদের স্রোত কমাতে ঋষি সুনাক নেতৃত্বাধীন দেশটির সরকার নতুন করে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে।

ব্রেক্সিটের সমালোচকরা বলছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের প্রস্থান শ্রমিক সংকটকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। কারণ ইইউ নাগরিকরা আর আগের মতো ব্রিটেনে কাজ করার জন্য ভিসা ছাড়া ঢুকতে পারেন না।

দেশটির সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ব্রিটেনে বিদেশি শ্রমিক হিসেবে আবেদনকারীদের একজন নিয়োগকর্তার কাছ থেকে চাকরির অফার এবং ইংরেজি ভাষার দক্ষতার শর্ত অবশ্যই পূরণ করতে হবে।