কুয়েত এয়ারওয়েজের বার্ষিক এজেন্ট সম্মেলন অনুষ্ঠিত

  • আপডেট সময় : ০৫:৪৩:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • / 79
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

এয়ারলাইন্স নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশের ২০টি শীর্ষ ট্রাভেল এজেন্টকে পুরস্কৃত করেছে কুয়েতের জাতীয় উড়োজাহাজ সংস্থা কুয়েত এয়ারওয়েজ।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে কুয়েত এয়ারওয়েজের ‌‘অ্যানুয়াল এজেন্ট কনফারেন্স ২০২৩’ অনুষ্ঠানে ২০টি এজেন্টের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

পুরস্কার পাওয়া এজেন্টগুলো হচ্ছে, এক্টিভেট ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, এয়ার স্পিড প্রাইভেট লিমিটেড, আল-গাজী ট্রাভেলস লিমিটেড, আল-মনসুর এয়ার সার্ভিস লিমিটেড, এলাইট ট্রাভেলস, বি ফ্রেশ লিমিটেড, ডায়নামিক ট্রাভেলস, ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুর, জিমিনি ট্রাভেলস লিমিটেড, গোল্ড এয়ার এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড, হাজী এয়ার ট্রাভেলস লিমিটেড, হরিজন এক্সপ্রেস লিমিটেড, ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেল কর্পোরেশন, লতিফ ট্রাভেলস প্রাইভেট লিমিটেড, সায়মন ওভারসিস লিমিটেড, সানজার এভিয়েশন লিমিটেড, সোমা ইন্টারন্যাশনাল সার্ভিসেস, টালন কর্পোরেশন লিমিটেড, ট্যুর বুকিং বাংলাদেশ, ভ্যালেন্সিয়া এয়ার ট্রাভেল অ্যান্ড লিমিটেড এবং ভিক্টোরি ট্রাভেলস লিমিটেড।

অন্যদিকে কুয়েত এয়ারওয়েজের সঙ্গে দীর্ঘদিন কাজ করায় দুইজনকে পুরস্কৃত করেছে এ উড়োজাহাজ সংস্থা। এদের মধ্যে হামিদুর রশিদ চৌধুরী ১৯৯১ সালে সিলেটের ম্যানেজার হিসেবে কুয়েত এয়ারওয়েজে যুক্ত হন। এছাড়া অফিস সহকারী পরশু রাম দাশকে পুরস্কৃত করা হয়। তিনি কুয়েত এয়ারওয়েজের সঙ্গে কাজ শুরু করেন ১৯৯২ সালে।

অনুষ্ঠানে টোটাল এয়ারলাইন্স সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোরশেদুল আলম চাকলাদার বলেন, এয়ারলাইন্স সেক্টরে করোনাকালীন সময়ে একটা বড় ধাক্কা এসেছিল। সে সময় আমরা আমাদের কোন কর্মীকে ছাঁটাই করিনি বরং তাদের সঙ্গে নিয়েই আমরা কাজ করেছি। বর্তমানে আমরা ৬টি এয়ারলাইন্সের জিএসএ হিসাবে কাজ করছি।

গ্রুপের পরিচালক কাজী শাহ মোজাক্কের বলেন, যারা আমাদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করছেন তাদের জন্য আমরা আজকে এ আয়োজন করেছি। মূলত তাদের কথা শোনা এবং পরামর্শ নেওয়া এটি আমাদের মূল উদ্দেশ্য। এই সময়ের মধ্যে যারা খুব ভালো সাপোর্ট দিয়েছে এমন ২০টি এজেন্টকে আমরা পুরস্কৃত করেছি। এছাড়া বাকি এজেন্টরাও আমাদের সঙ্গে আছেন, তারা ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজ করবে বলে আশা করি।

অনুষ্ঠানে কুয়েত এয়ারওয়েজ, টোটাল এয়ারলাইন্স সার্ভিসেস লিমিটেডের বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ দেশের বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্টরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

কুয়েত এয়ারওয়েজের বার্ষিক এজেন্ট সম্মেলন অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০৫:৪৩:০৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

এয়ারলাইন্স নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশের ২০টি শীর্ষ ট্রাভেল এজেন্টকে পুরস্কৃত করেছে কুয়েতের জাতীয় উড়োজাহাজ সংস্থা কুয়েত এয়ারওয়েজ।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে কুয়েত এয়ারওয়েজের ‌‘অ্যানুয়াল এজেন্ট কনফারেন্স ২০২৩’ অনুষ্ঠানে ২০টি এজেন্টের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

পুরস্কার পাওয়া এজেন্টগুলো হচ্ছে, এক্টিভেট ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস, এয়ার স্পিড প্রাইভেট লিমিটেড, আল-গাজী ট্রাভেলস লিমিটেড, আল-মনসুর এয়ার সার্ভিস লিমিটেড, এলাইট ট্রাভেলস, বি ফ্রেশ লিমিটেড, ডায়নামিক ট্রাভেলস, ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুর, জিমিনি ট্রাভেলস লিমিটেড, গোল্ড এয়ার এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড, হাজী এয়ার ট্রাভেলস লিমিটেড, হরিজন এক্সপ্রেস লিমিটেড, ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেল কর্পোরেশন, লতিফ ট্রাভেলস প্রাইভেট লিমিটেড, সায়মন ওভারসিস লিমিটেড, সানজার এভিয়েশন লিমিটেড, সোমা ইন্টারন্যাশনাল সার্ভিসেস, টালন কর্পোরেশন লিমিটেড, ট্যুর বুকিং বাংলাদেশ, ভ্যালেন্সিয়া এয়ার ট্রাভেল অ্যান্ড লিমিটেড এবং ভিক্টোরি ট্রাভেলস লিমিটেড।

অন্যদিকে কুয়েত এয়ারওয়েজের সঙ্গে দীর্ঘদিন কাজ করায় দুইজনকে পুরস্কৃত করেছে এ উড়োজাহাজ সংস্থা। এদের মধ্যে হামিদুর রশিদ চৌধুরী ১৯৯১ সালে সিলেটের ম্যানেজার হিসেবে কুয়েত এয়ারওয়েজে যুক্ত হন। এছাড়া অফিস সহকারী পরশু রাম দাশকে পুরস্কৃত করা হয়। তিনি কুয়েত এয়ারওয়েজের সঙ্গে কাজ শুরু করেন ১৯৯২ সালে।

অনুষ্ঠানে টোটাল এয়ারলাইন্স সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোরশেদুল আলম চাকলাদার বলেন, এয়ারলাইন্স সেক্টরে করোনাকালীন সময়ে একটা বড় ধাক্কা এসেছিল। সে সময় আমরা আমাদের কোন কর্মীকে ছাঁটাই করিনি বরং তাদের সঙ্গে নিয়েই আমরা কাজ করেছি। বর্তমানে আমরা ৬টি এয়ারলাইন্সের জিএসএ হিসাবে কাজ করছি।

গ্রুপের পরিচালক কাজী শাহ মোজাক্কের বলেন, যারা আমাদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করছেন তাদের জন্য আমরা আজকে এ আয়োজন করেছি। মূলত তাদের কথা শোনা এবং পরামর্শ নেওয়া এটি আমাদের মূল উদ্দেশ্য। এই সময়ের মধ্যে যারা খুব ভালো সাপোর্ট দিয়েছে এমন ২০টি এজেন্টকে আমরা পুরস্কৃত করেছি। এছাড়া বাকি এজেন্টরাও আমাদের সঙ্গে আছেন, তারা ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজ করবে বলে আশা করি।

অনুষ্ঠানে কুয়েত এয়ারওয়েজ, টোটাল এয়ারলাইন্স সার্ভিসেস লিমিটেডের বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ দেশের বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্টরা উপস্থিত ছিলেন।