ঢাকা ০৩:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লিবিয়ার বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতকে দুতাবাসের বিদায় সংবর্ধনা

  • আপডেট সময় : ০২:২১:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২
  • / 94
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

 

 

প্রবাসী কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশ : ৩১ ডিসেম্বর, রাত ৮টা ২০ মিনিট

 

পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ২৪ ডিসেম্বর বিকেল থেকে লিবিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাসের দায়িত্ব পালন করবেন কাউন্সেলর (পলিটিক্যাল) কাজী আসিফ আহমেদকে।
গত ২৩ ডিসেম্বর দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম শামিম উজ জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ দায়িত্বের কথা উল্লেখ করা হয়।
এদিকে তিনদিন আগে লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল এস এম শামিম উজ জামান, এসবিপি, বিএসপি, এনডিসি, পিএসসিকে বাংলাদেশ দূতাবাস, ত্রিপলীর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়।
দূতাবাসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স কাজী আসিফ আহমেদ এর সভাপতিত্বে ও হেড অব চ্যান্সরি এবং প্রথম সচিব (শ্রম) মোঃ রাসেল মিয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্মৃতিচারণমূলক প্রদান করেন। এসময় তারা বলেন রাষ্ট্রদূত লিবিয়ার প্রতিকুল পরিস্থিতির মধ্যেও এদেশে কর্মরত বাংলাদেশী প্রবাসীদের কন্স্যুলার ও কল্যাণমূলক সেবা নিশ্চিত করাসহ দুদেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে একনিষ্ঠভাবে কাজ করেছেন।
বিশেষ করে তারা স্বল্পতম সময়ের মধ্যে লিবিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণ, দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা স্মারক চূড়ান্ত করা, বাংলাদেশি পণ্যের বাজার সৃষ্টিতে ভূমিকা, বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলকরা, বিনা খরচে অভিবাসীদের দেশে প্রত্যাবাসন, অবৈধ অভিবাসন প্রতিরোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ, বিনামূল্যে প্রবাসীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান, ডিটেনশন সেন্টারে আটক অভিবাসীদের মুক্তকরা, বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরনে পদক্ষেপ গ্রহন, কমিউনিটি স্কুলের উন্নয়ন, লিবিয়ার বিভিন্ন শহরে কন্স্যুলার টীম প্রেরণসহ লিবিয়া এবং সমবর্তী দেশসমুহ যথা – তিউনিসিয়া, নাইজার ও বুরকিনা ফাসোর সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারকরণে রাষ্ট্রদূতের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরা হয় বিদায়ী অনুষ্ঠানে।
রাষ্ট্রদূত তাঁর কর্মকালীন সময়ে সার্বিক সহযোগিতার জন্য দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ধন্যবাদ জানান। একইসাথে তিনি লিবিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে বিভিন্ন সেক্টরে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উত্তরোত্তর বৃদ্ধি কামনা করেন। পরিশেষে দূতাবাসের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূতকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স কাজী আসিফ আহমেদ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত এর সহধর্মিণী মিসেস রেহানা ইয়াসমীনকেও দুতাবাসের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করা হয় ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

লিবিয়ার বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতকে দুতাবাসের বিদায় সংবর্ধনা

আপডেট সময় : ০২:২১:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২

 

 

 

প্রবাসী কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশ : ৩১ ডিসেম্বর, রাত ৮টা ২০ মিনিট

 

পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত ২৪ ডিসেম্বর বিকেল থেকে লিবিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাসের দায়িত্ব পালন করবেন কাউন্সেলর (পলিটিক্যাল) কাজী আসিফ আহমেদকে।
গত ২৩ ডিসেম্বর দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম শামিম উজ জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ দায়িত্বের কথা উল্লেখ করা হয়।
এদিকে তিনদিন আগে লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল এস এম শামিম উজ জামান, এসবিপি, বিএসপি, এনডিসি, পিএসসিকে বাংলাদেশ দূতাবাস, ত্রিপলীর পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়।
দূতাবাসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স কাজী আসিফ আহমেদ এর সভাপতিত্বে ও হেড অব চ্যান্সরি এবং প্রথম সচিব (শ্রম) মোঃ রাসেল মিয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্মৃতিচারণমূলক প্রদান করেন। এসময় তারা বলেন রাষ্ট্রদূত লিবিয়ার প্রতিকুল পরিস্থিতির মধ্যেও এদেশে কর্মরত বাংলাদেশী প্রবাসীদের কন্স্যুলার ও কল্যাণমূলক সেবা নিশ্চিত করাসহ দুদেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে একনিষ্ঠভাবে কাজ করেছেন।
বিশেষ করে তারা স্বল্পতম সময়ের মধ্যে লিবিয়ার শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণ, দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা স্মারক চূড়ান্ত করা, বাংলাদেশি পণ্যের বাজার সৃষ্টিতে ভূমিকা, বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলকরা, বিনা খরচে অভিবাসীদের দেশে প্রত্যাবাসন, অবৈধ অভিবাসন প্রতিরোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ, বিনামূল্যে প্রবাসীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান, ডিটেনশন সেন্টারে আটক অভিবাসীদের মুক্তকরা, বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরনে পদক্ষেপ গ্রহন, কমিউনিটি স্কুলের উন্নয়ন, লিবিয়ার বিভিন্ন শহরে কন্স্যুলার টীম প্রেরণসহ লিবিয়া এবং সমবর্তী দেশসমুহ যথা – তিউনিসিয়া, নাইজার ও বুরকিনা ফাসোর সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারকরণে রাষ্ট্রদূতের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরা হয় বিদায়ী অনুষ্ঠানে।
রাষ্ট্রদূত তাঁর কর্মকালীন সময়ে সার্বিক সহযোগিতার জন্য দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ধন্যবাদ জানান। একইসাথে তিনি লিবিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে বিভিন্ন সেক্টরে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উত্তরোত্তর বৃদ্ধি কামনা করেন। পরিশেষে দূতাবাসের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূতকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স কাজী আসিফ আহমেদ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত এর সহধর্মিণী মিসেস রেহানা ইয়াসমীনকেও দুতাবাসের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করা হয় ।