এয়ারলাইন বেচে দেবে শ্রীলঙ্কা

  • আপডেট সময় : ০৭:১০:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২
  • / 377
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। এই সংকট কাটিয়ে উঠতে এবার রাষ্ট্রীয় এয়ারলাইন বেচে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটির নতুন সরকার।

 

সোমবার(১৬ মে) জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে জানান, নতুন প্রশাসন শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সকে বেসরকারীকরণের পরিকল্পনা করছে। গত বছর শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইনে ৪৫ বিলিয়ন রুপি লোকসান হয়েছে।

বিক্রমাসিংহে বলেন, দরিদ্র যারা বিমানে পা রাখেননি তাদের এমন ক্ষতি বহন করা উচিত হবে না।

গত সপ্তাহে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়েছেন রনিল বিক্রমাসিংহে। এরমধ্যেই সরকারি কর্মীদের বেতন দিতে নতুন মুদ্রা ছাপাতে বাধ্য হয়েছে বলে জানান তিনি। তবে বিশ্লেষকেরা বলছেন, এটি শ্রীলঙ্কার অর্থনীতিতে আরও চাপ বাড়াবে।

এ নিয়ে বিক্রমাসিংহে বলেন,আমাদের পেট্রোল ফুরিয়ে গেছে। এই মুহূর্তে আমাদের কাছে মাত্র আর এক দিনের পেট্রোল মজুত রয়েছে।  বেতন দিতে নতুন অর্থ ছাপাতে বাধ্য হচ্ছি।

১৯৪৮ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্ত হওয়ার পর এখন সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। যদিও দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজপক্ষে এখনো পদত্যাগ করেননি। নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকটকে কেন্দ্র করে কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা বিক্ষোভের পর পদত্যাগ করেন শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে। এরপরই প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পান রনিল বিক্রমাসিংহে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

এয়ারলাইন বেচে দেবে শ্রীলঙ্কা

আপডেট সময় : ০৭:১০:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২

তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। এই সংকট কাটিয়ে উঠতে এবার রাষ্ট্রীয় এয়ারলাইন বেচে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে দেশটির নতুন সরকার।

 

সোমবার(১৬ মে) জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে জানান, নতুন প্রশাসন শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সকে বেসরকারীকরণের পরিকল্পনা করছে। গত বছর শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইনে ৪৫ বিলিয়ন রুপি লোকসান হয়েছে।

বিক্রমাসিংহে বলেন, দরিদ্র যারা বিমানে পা রাখেননি তাদের এমন ক্ষতি বহন করা উচিত হবে না।

গত সপ্তাহে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়েছেন রনিল বিক্রমাসিংহে। এরমধ্যেই সরকারি কর্মীদের বেতন দিতে নতুন মুদ্রা ছাপাতে বাধ্য হয়েছে বলে জানান তিনি। তবে বিশ্লেষকেরা বলছেন, এটি শ্রীলঙ্কার অর্থনীতিতে আরও চাপ বাড়াবে।

এ নিয়ে বিক্রমাসিংহে বলেন,আমাদের পেট্রোল ফুরিয়ে গেছে। এই মুহূর্তে আমাদের কাছে মাত্র আর এক দিনের পেট্রোল মজুত রয়েছে।  বেতন দিতে নতুন অর্থ ছাপাতে বাধ্য হচ্ছি।

১৯৪৮ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্ত হওয়ার পর এখন সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। যদিও দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজপক্ষে এখনো পদত্যাগ করেননি। নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকটকে কেন্দ্র করে কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা বিক্ষোভের পর পদত্যাগ করেন শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে। এরপরই প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পান রনিল বিক্রমাসিংহে।