ঢাকা ০৯:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুখ-দুঃখের সারথি ডা. রোকসানা

  • আপডেট সময় : ১২:৩০:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩
  • / 48
প্রবাসী কণ্ঠ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আবুধাবিতে রোগীদের যত্নসহকারে চিকিৎসা করেন ডাক্তার রোকসানা মুহাম্মদ। বিশেষ করে সময় নিয়ে দেখে সুন্দর ও মানবিক ব্যবহার দিয়ে বেশিরভাগ রোগীদের চেম্বারেই মানসিকভাবে সুস্থ করে তোলেন। এভাবে বাংলাদেশিসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের সুখ-দুঃখের সারথি হিসেবে নিজেকে ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তিনি।

প্রবাসীদের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় এমনকি ঘরোয়া আলোচনাসহ যেকোনো অনুষ্ঠানে যদি একবার উচ্চারিত হয় ডাক্তার রোকসানার নাম। এরপর আর কিছু বলতে হবে না। চতুর্দিক থেকে তখন শুরু হবে শুধু তার প্রশংসা আর প্রশংসা।

ডাক্তার রোকসানার প্রশংসা করে আমিরাতের একজন সাংবাদিক জানান, সোমবার (১৪ আগস্ট) অসুস্থতার কারণে ডাক্তার রোকসানার কাছে যাই। তিনি এমনভাবে কথা বললেন মনে হচ্ছে তার সঙ্গে আমার জন্মের অনেক আগের পরিচয়। এত আপন করে পরামর্শ দিলেন মনে হলো পরিবারের কেউ। বলতে দিলেন শুনতে চাইলেন শতভাগ মনোযোগ দিয়ে। গুরুত্ব দিলেন মানুষ হিসেবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে প্রতিদিন ডাক্তারদের অমানবিক আচরণ দেখতে দেখতে প্রায় সব ডাক্তারদের মনে হতো তারা যেন মানুষ না শুধুই কসাই। অমানুষ এবং অমানবিক। কিন্তু দেশ থেকে সুদূর এ প্রবাসে এসে ডাক্তার রোকসানার আচরণ দেখে মনে হলো এখনো কিছু ভালো মানুষ রয়েছে। যারা নিজেদেরকে ডাক্তারের চেয়েও মানুষ হিসেবে পরিচয় দিতে ভালবাসেন তাদের অসাধারণ উৎকৃষ্ট উদাহরণ ডাক্তার রোকসানা মুহাম্মদ। তিনি আবুধাবিতে গরিবের ডাক্তার এবং মানবিক ডাক্তার হিসেবে প্রবাসীদের কাছে পরিচিত এবং প্রশংসিত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুখ-দুঃখের সারথি ডা. রোকসানা

আপডেট সময় : ১২:৩০:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩

আবুধাবিতে রোগীদের যত্নসহকারে চিকিৎসা করেন ডাক্তার রোকসানা মুহাম্মদ। বিশেষ করে সময় নিয়ে দেখে সুন্দর ও মানবিক ব্যবহার দিয়ে বেশিরভাগ রোগীদের চেম্বারেই মানসিকভাবে সুস্থ করে তোলেন। এভাবে বাংলাদেশিসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের সুখ-দুঃখের সারথি হিসেবে নিজেকে ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তিনি।

প্রবাসীদের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় এমনকি ঘরোয়া আলোচনাসহ যেকোনো অনুষ্ঠানে যদি একবার উচ্চারিত হয় ডাক্তার রোকসানার নাম। এরপর আর কিছু বলতে হবে না। চতুর্দিক থেকে তখন শুরু হবে শুধু তার প্রশংসা আর প্রশংসা।

ডাক্তার রোকসানার প্রশংসা করে আমিরাতের একজন সাংবাদিক জানান, সোমবার (১৪ আগস্ট) অসুস্থতার কারণে ডাক্তার রোকসানার কাছে যাই। তিনি এমনভাবে কথা বললেন মনে হচ্ছে তার সঙ্গে আমার জন্মের অনেক আগের পরিচয়। এত আপন করে পরামর্শ দিলেন মনে হলো পরিবারের কেউ। বলতে দিলেন শুনতে চাইলেন শতভাগ মনোযোগ দিয়ে। গুরুত্ব দিলেন মানুষ হিসেবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে প্রতিদিন ডাক্তারদের অমানবিক আচরণ দেখতে দেখতে প্রায় সব ডাক্তারদের মনে হতো তারা যেন মানুষ না শুধুই কসাই। অমানুষ এবং অমানবিক। কিন্তু দেশ থেকে সুদূর এ প্রবাসে এসে ডাক্তার রোকসানার আচরণ দেখে মনে হলো এখনো কিছু ভালো মানুষ রয়েছে। যারা নিজেদেরকে ডাক্তারের চেয়েও মানুষ হিসেবে পরিচয় দিতে ভালবাসেন তাদের অসাধারণ উৎকৃষ্ট উদাহরণ ডাক্তার রোকসানা মুহাম্মদ। তিনি আবুধাবিতে গরিবের ডাক্তার এবং মানবিক ডাক্তার হিসেবে প্রবাসীদের কাছে পরিচিত এবং প্রশংসিত।