বায়রায় বসছে প্রশাসক, নির্বাচন ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সীজের (বায়রা) কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদকাল, দায়িত্ব ও নির্বাচন নিয়ে হাই কোর্টের আদেশ বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ।
হাই কোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে করা বায়রার আবেদন শুনে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যর আপিল বেঞ্চ সোমবার ‘নো অর্ডার’ দেয়।

আইনজীবীরা বলছেন, এই আদেশের ফলে হাই কোর্টের আদেশটিই বহাল থাকল। অর্থাৎ, হাই কোর্টের আদেশ বহাল থাকায় ১২ জুলাই বায়রার বর্তমান কমিটির মেয়াদপূর্তির পর ১৩ জুলাই এ সংগঠনের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নেবেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য সংগঠন অনুবিভাগের (ডিটিও) পরিচালক। তিনি আগামী ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নির্বাচনের ব্যবস্থা করবেন।
আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আখতার ইমাম। তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম ও ব্যারিস্টার রেশাদ ইমাম অমিত। আর রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

বায়রার ১০ সদস্যের এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ২৮ মে বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ আরও নয় মাস বাড়িয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আদেশ স্থগিত করে হাই কোর্ট।
এরপর আরেকটি সম্পূরক আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ৪ জুলাই হাই কোর্ট আরেকটি আদেশ দেয়। সেখানে প্রশাসক নিয়োগের মাধ্যমে নতুন নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করে দেওয়া হয়।
হাই কোর্টের ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে এরপর আপিল বিভাগে আবেদন করে বায়রা। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার আপিল বিভাগ ‘নো অর্ডার’ দেয়।

রাশনা ইমাম পরে সাংবাদিকদের বলেন, “বায়রার আবেদনে নো অর্ডার দিয়েছে আপিল বিভাগ। ফলে বর্তমান কমিটির মেয়াদকাল, দায়িত্ব ও ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বায়রার নির্বাচন অনুষ্ঠানে হাই কোর্টের আদেশটিই বহাল থাকল।”

বায়রার বর্তমান কমিটি ২০১৬ সালের ১৩ জুলাই দুই বছরের জন্য নির্বাচিত হয়। মেয়াদ ফুরিয়ে আসায় গত ২২ মার্চ বায়রার নির্বাচন বোর্ড নির্বাচনের জন্য ২৪ জুন দিন ঠিক করে।
কিন্তু এর মধ্যে বায়রার বর্তমান সভাপতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে একটি আবেদন করেন। সেখানে রোজা, ঈদ, হজ, বর্ষা, ঈদুল আযহা ও জাতীয় নির্বাচনের কারণ দেখিয়ে কমিটির মেয়াদ বৃদ্ধির কথা বলা হয়।

বিডিনিউজ২৪.কম