জামিনে মুক্তি পেলেন নাজিব রাজাক

প্রবাসীকণ্ঠ ডেস্ক:
গ্রেফতারের একদিন পর আদালতে অভিযোগ গঠনের দিনেই জামিনে মুক্তি পেয়েছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। দুই পাসপোর্ট জমা জমা দেওয়া আর এক মিলিয়ন রিঙ্গিতের (মালয়েশিয়ার মুদ্রা) বন্ডে বুধবার তার জামিনের আদেশ দেয় আদালত। এদিন তার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় সংঘটিত ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে দেশটির উচ্চ আদালতে তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এই খবর জানিয়েছে।
জামিনে মুক্তির পর আদালতের বাইরে বেরিয়ে আসেন নাজিব রাজাক
নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার দুই মাসের মধ্যে মঙ্গলবার নিজের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে। দুর্নীতি দমন কমিশনের কর্মকর্তাদের হাতে আটক হওয়া নাজিবের বিরুদ্ধে ক্ষমতায় থাকা অবস্থাতেই তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিনিয়োগ তহবিল ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদের (ওয়ানএমডিবি) অর্থ আত্মসাৎ করে নাজিব নিজ ব্যাংক হিসাবে জমা করেছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছিল। তবে নাজিব এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
বুধবার তার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে চারটি অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি বিশ্বাসভঙ্গজনিত অপরাধ ও অপরটি ক্ষমতার অপব্যবহার করে ৪২ মিলিয়ন রিঙ্গিত আত্মসাৎ। অপরাধ প্রমাণিত হলে প্রতিটির জন্য তার ২০ বছর করে কারাদণ্ড হতে পারে।
তবে নাজিব দাবি করে আসছেন তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রনোদিত। ফরাসি বার্তা সংষ্থা এএফপি জানিয়েছে বুধবার আদালতে নাজিবের জামিন শুনানির সময়ে আদালতের বাইরে প্রায় পাঁচ শতাধিক নাজিব সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।
আদালতে নাজিবের আইনজীবীরা জামিন আবেদন করলে এটর্নি জেনারেল টমি থমাস চার মিলিয়ন রিঙ্গিত জমা দেওয়ার শর্তে জামিনের আবেদন জানান। তবে নাজিবের আইনজীর্ব মুহাম্মদ শাফি আবদুল্লাহ দাবি করেন, তার ক্লায়েন্ট ‘উড়াল দেওয়ার ঝুঁকিতে নেই’।
পরে আদালত এক মিলিয়ন রিঙ্গিত ও দুটি পাসপোর্ট জমা দেওয়ার শর্তে নাজিবের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। জামিনে বের হয়ে আসার পর নাজিব সাংবাদিকদের বলেন, আমার বিরুদ্ধে এত বেশি অপবাদ দেওয়ার পর নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে আদালতই সবচেয়ে ভালো উপায়।
পরে পুলিশ সদস্য পরিবেষ্টিত হয়ে পাঁচটি গাড়ির বহর নিয়ে বেরিয়ে যান নাজিব রাজাক।
সুত্র: Bangla Tribune