হাসপাতালে কাঁদলেন আইভী

প্রবাসীকণ্ঠ ডেস্ক:
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, পূর্ব থেকেই আমাদের ওপর হামলার পরিকল্পনা ছিল। পরিকল্পনা অনুযায়ী আমাদের ওপর হামলা হয়েছে।

তিনি বলেন, সংঘর্ষের সময় আমার ওপর বৃষ্টির মতো ইট ছোড়া হয়েছে। স্বজন ও কর্মীরা মানব ঢাল তৈরি করে আমাকে রক্ষা না করলে আমার অবস্থা আরও ভয়াবহ হতো।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের তিন তলায় সংঘর্ষে আহত হয়ে ভর্তি সাংবাদিক শরীফউদ্দিন সবুজ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলমসহ আহতদের দেখতে গিয়ে এসব কথা বলেন মেয়র আইভী।

এ সময় তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীনদের সঙ্গে কথা বলেন। একপর্যায়ে নেতা-কর্মী ও আহত সাংবাদিককে দেখে আবেগ আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন মেয়র আইভী।

জাহাঙ্গীরসহ আহতদের সঙ্গে কথার সময় মেয়র আইভী বলেন, তোমরা এভাবে একজন মেয়রকে রক্ষা করেছো। সেজন্য আমি কৃতজ্ঞ। তোমরা যেভাবে আমার আঘাত তোমাদের ওপর নিয়েছো সেজন্য আমি তোমাদের কাছে ঋণী। আমি যেন মেয়রের সকল দায়িত্ব পালন করতে পারি দোয়া করিও। আমি তো টাকা পয়সা দিয়ে কারও সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে পারি না, আর সম্পর্ক করিও না। তোমরা আমাকে ভালোবেসে বিনা স্বার্থে বিনা লাভে রক্ষা করেছো। তাই তোমাদের প্রতি আমার ভালোবাসা থাকলো।

এ সময় মেয়র আইভীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- কাউন্সিলর অসিত বরন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলী আহমেদ রেজা উজ্জ্বল, আলী আহমেদ রেজা রিপন ও মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী আবুল হোসেন প্রমুখ। সুত্র: জাগো নিউজ