৮৬১ প্রবাসী কর্মীর লাশ ফ্রি এনেছে বিমান

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স গত ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বিনা ভাড়ায় ৮৬১ জন প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকের লাশ বহন করেছে।

গতকাল বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জেনারেল ম্যানেজার ৯জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ এর পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানিয়ে বলা হয়, আবুধাবি থেকে ২৭ জন, দোহা থেকে ৮ জন, দাম্মাম থেকে ৯৩ জন, দুবাই থেকে ৫৯ জন, কুয়ালালামপুর থেকে ৬২ জন, জেদ্দা থেকে ৩২ জন, কুয়েত থেকে ৯১ জন, মাস্কাট থেকে ১৭৩ জন এবং রিয়াদ থেকে ৩১৬ জন প্রবাসীর লাশ দেশে নিয়ে আসা হয়েছে। এয়ারলাইন্সের ইতিহাসে মানবতার কল্যাণে এটি বিরল দৃষ্টান্ত বলে মনে করছেন তিনি।

প্রতিষ্ঠার চার দশক পর থেকে রাষ্ট্রায়াত্ত এই প্রতিষ্ঠান দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সামাজিক দায়বদ্ধতার ক্ষেত্রে এক অনুকরণীয় দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছে। দেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের অন্যতম প্রধান খাত রেমিটেন্সের সঙ্গে জড়িত প্রবাসী বাংলাদেশিরা, আর বিশ্বের নানা প্রান্তে কর্মরত অভিবাসী বাংলাদেশিদের পরিবহনে বিমান সবসময়ই অগ্রনী ভূমিকা পালন করে আসছে। এছাড়াও আন্তর্জাতিক সংকটে, যুদ্ধাবস্থায়, বিপদগ্রস্ত বাংলাদেশি কর্মীদের দ্রুততম সময়ে দেশে ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমান বিভিন্ন গন্তব্যস্থল থেকে প্রবাসে কর্মরত বাংলাদেশি নাগরিকদের লাশ বিনামূল্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেশে বয়ে এনে জাতীয় সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান হিসাবে এক উজ্জ্বল দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করে চলেছে।

বিমানের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ বলেন, ‘বিমান বিনা ভাড়ায় প্রবাসী শ্রমিকদের লাশ বহন করে। একজনের লাশ বহন করতে অন্য এয়ারলাইন্সগুলোকে লক্ষাধিক টাকা পরিশোধ করতে হয়। তিনি জানান, ৮৬১ জন প্রবাসীর লাশ বহনে বিমান স্বজনদের কাছ থেকে কোনো টাকা নেয়নি।