‘কিম জং উনকে হত্যার ষড়যন্ত্রে সিআইএ’

kim-520170505181142

প্রবাসী কণ্ঠ ডেস্ক

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনকে জৈব-রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এমন অভিযোগ আনা হয়েছে। খবর বিবিসির।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রণালয় বলেছে, সিআইএ এবং দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা মিলে এই ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল। পিয়ংইয়ং যে কোন প্রকাশ্য অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের সময় কিম জং উনকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাকযুদ্ধকে কেন্দ্র করে কোরীয় দ্বীপে উত্তেজনার মধ্যেই উত্তর কোরিয়া এমন অভিযোগ করল।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সিআইএ তেজস্ক্রিয় জৈবরাসায়নিক পদার্থ বা বিষ ব্যবহার প্রয়োগ করে কিম জং উনকে হত্যার ষড়যন্ত্র করে। এজন্যে তারা কিম নামের এক উত্তর কোরিয়ান নাগরিককে ঘুষ দিয়ে এই কাজের জন্য ভাড়া করে।

পিয়ংইয়ং এ কোন রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার সময় কিম জং উনের ওপর বিষ প্রয়োগের পরিকল্পনা ছিল। বিষ প্রয়োগের পর ছয় মাস বা বারো মাস পরেও তা কাজ করতে পারে।

কিম নামের ওই ব্যক্তিকে এই কাজের জন্য বিশ হাজার মার্কিন ডলার এবং একটি স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার রিসিভার দেওয়া হয়েছিল বলেও অভিযোগ করছে উত্তর কোরিয়া। তবে কিভাবে এই ষড়যন্ত্র বানচাল করা হয় তা বিস্তারিত জানায়নি উত্তর কোরিয়া।

দেশটির তরফ থেকে হুশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘সিআইএ এবং তাদের পুতুল দক্ষিণ কোরিয়ার সন্ত্রাসীদের নির্মমভাবে নির্মূল করা হবে।

সুত্র জাগোনিউজ২৪.কম