এফবিসিসিআই নির্বাচনে শমী কায়সার প্রার্থী হলেন

somi-kaiser20170420201134

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) ২০১৭-১৯ মেয়াদকালের দ্বিবার্ষিক মেয়াদের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন ১৪ মে। নির্বাচনে সম্মিলিত গণতান্ত্রিক পরিষদের প্যানেলে অ্যাসোসিয়েশন ও চেম্বার গ্রুপ থেকে মনোনীতদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন অভিনেত্রী শমী কায়সার। তিনি ই-কমার্সভিত্তিক একটি সংগঠন থেকে এফবিসিসিআইয়ের সাধারণ পরিষদের সদস্য ও ভোটার হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পূর্বাণী হোটেলে পরিচালক পদে নাম ঘোষণা করেন প্যানেল লিডার ও সভাপতি প্রার্থী শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। অ্যাসোসিয়েশন ও চেম্বার গ্রুপে ১৮ জন করে মোট ৩৬ পরিচালক প্রর্থীর নাম ঘোষণা করা হয়।

অ্যাসোসিয়েশনের মনোনীত প্রার্থীরা হলেন- বাংলাদেশ অ্যাগ্রিকালচার মেশিনারি মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের খন্দকার মাইনুল, বাংলাদেশ অ্যাগ্রো-প্রসেসর’স এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ কল সেন্টার অ্যান্ড আউট সোর্সিংয়ের শাফকাত হায়দার, বাংলাদেশ অটো স্পায়ার পারর্স মার্চেন্ট অ্যান্ড ম্যানুফেকচুয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের মো. আয়েস খান, বাংলাদেশ কোল্ড স্টোরেস অ্যাসোসিয়েশনের মো. মুনতাকিম আশরাফ, বাংলাদেশ হার্ডপর্ষদ ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের মীর নিজাম উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ জুয়েলারি ম্যানুফেচারার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের আনোয়ার হোসাইন।

বাংলাদেশ লেডার গুডস ম্যানুফেকচার অ্যাসোসিয়েশনের আমজাদ হোসাইন, বাংলাদেশ পেপার্স ইনপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের মো. শফিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ প্লাস্টিক প্যাকেজিংয়ের আবু মোতালেব, বাংলাদেশ রি-কন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার্স অ্যান্ড ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বারভিডা) প্রেসিডেন্ট মো. হাবিব উল্লাহ ডন, বাংলাদেশ রেস্টুরেন্ট অনার্স অ্যাসোসিয়েশন খন্দকার রূহুল আমিন, বাংলাদেশ সেকেন্ডারি টিপ্লেট অ্যাসোসিয়েশন নিজাম উদ্দিন রাজেশ, বাংলাদেশ সুইচ ম্যানুফেচাররা অ্যাসোসিয়েশন আবদুল হক, ক্যাব অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের হাফেজ হারুন, ই-কর্মাস অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের শমী কায়সার, আউট সোর্সিং লজিস্টিক সার্ভিস প্রভাইডার অ্যাসোসিয়েশন মো. আবু নাসের, প্রাইভেট রেডিও অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ রাশেদুল হোসাইন চৌধুরী রনি।

চেম্বার গ্রুপে মনোনীত হয়েছে যারা-
বাগেরহাট চেম্বারের হাসিনা নেওয়াজ, বরিশাল চেম্বারের মো. নিজাম উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া চেম্বারের আজিজুল হক, চুয়াডাঙ্গা চেম্বারের দীলিপ কুমার আগারওয়ালা, কুমিল্লা চেম্বারের মাসুদ পারভেজ খান ইমরান, ফেনী চেম্বারের এ কে এন শাহেদ রেজা, গাজীপুর চেম্বারের মো. আনোয়ার শাদাত সরকার, গোপলগঞ্জ চেম্বারের শেখ ফজলে ফাহিম, জামালপুর চেম্বারের মো. রেজাউল করিম রঞ্জু, কিশোরগঞ্জ চেম্বারের গাজী গোলাম আশরিয়া, লালমনিরহাট চেম্বারের শেখ আব্দুল হামিদ, মানিকগঞ্জ চেম্বারের তাবারুকুল তোদাদ্দেক হোসেন খান টিটু, মুন্সিগঞ্জ চেম্বারের মো. কহিনুর ইসলাম, নরসিংদী চেম্বারের প্রবীর কুমার সাহা, নোয়াখালি চেম্বারের আতাউর রহমান ভুইয়া, রাঙামাটি চেম্বারের মো. বজলুল রহমান, সুনামগঞ্জ চেম্বারের খায়রুল হুদা চপল টাংগাইল চেম্বারের আবুল কাশেম আহমেদ।

আগামী ২৩ এপ্রিল নির্বাচনে অংশগ্রণকারী যোগ্য প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করবে নির্বাচন পরিচালনা পর্ষদ। ২৬ এপ্রিল বিকেল ৪টার মধ্যে বাতিল হওয়া পরিচালক পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা আপিল করতে পারবেন। এছাড়া ২৭ ও ২৯ এপ্রিল আপিলের উপর শুনানি এবং ৩০ এপ্রিল চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবে নির্বাচন পরিচালন পর্ষদ।

somi-kaiser-320170420201046

এছাড়া ৬ মে বিকেল ৪টার মধ্যে মনোনয়ন প্রত্যাহার করা যাবে। ওইদিন নির্বাচন পরিচালনা পর্ষদ প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ এবং ১৪ মে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে।

গত ২৯ জানুয়ারি এফবিসিসিআই পরিচালনা পর্ষদের সভায় নির্বাচন পর্ষদ ও নির্বাচন আপিল পর্ষদ গঠন করা হয়। পর্ষদ দুটির প্রত্যেকটিতে সদস্য রাখা হয়েছে তিনজন করে। নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মো. আলি আশরাফ। আর এফবিসিসিআইয়ের সাবেক পরিচালক জাহাঙ্গীর আলামিনকে নির্বাচন আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে।

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান সংসদ সদস্য মো. আলি আশরাফ বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া নির্বাচন বোর্ডের অপর দুই সদস্য হলেন- এফবিসিসিআইয়ের সাবেক পরিচালক মো. শামসুল আলম এবং অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক কে এম এন মঞ্জুরুল হক।

অন্যদিকে জাহাঙ্গীর আলামিনকে চেয়ারম্যান করে গঠন করা নির্বাচন আপিল বোর্ডের অপর দুই সদস্য হলেন- চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি মির্জা আবু মনসুর এবং ঢাকা ক্লাবের সাবেক সভাপতি খায়রুল মজিদ মাহমুদ।

জাগোনিউজ২৪.কম