কাতারে নববর্ষ উদযাপন

প্রবাসীকণ্ঠ ডেস্ক
বাংলাদেশের সঙ্গে মিল রেখে কাতারে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ উদযাপন করেছেন প্রবাসীরা। শুক্রবার কাতারে বাংলাদেশ দূতাবাস ও বাংলাদেশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রবাসের মাটিতে বেড়ে উঠা তরুণ প্রজন্মকে বাংলা সাংস্কৃতির ইতিহাস ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

দেশটির রাজধানী দোহার আবু হামুর বাংলাদেশ এমএইচএম স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে বিকেল ৫টায় বেলুন উড়িয়ে বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করেন কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ।

মেলায় নানান নামে অনেক স্টলে পান্তা-ইলিশ, পিঠাপুলিসহ বিভিন্ন মজাদার খাবার নিয়ে বসে ছিলেন প্রবাসী ব্যবসায়ী ও গৃহিণীরা।

প্রবাসীদের বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ বলেন, আগামীর তরুণ প্রজন্ম বাংলা সাংস্কৃতিকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরে দেশকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে-এটাই প্রত্যাশা।

বাংলাদেশ এমএইচএম স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক সুপর্ণা রায় জাগো নিউজকে বলেন, প্রবাসে বসবাসরত বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের মাঝে নিজস্ব ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ভালোভাবে তুলে ধরতেই চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা।

শত ব্যস্ততার মধ্যেও ক্ষণিকের জন্য হলেও নববর্ষ উদযাপনে একত্রিত হয়েছিলেন কাতার প্রবাসী বাঙালিরা। দল-মতের ভেদাভেদ ভুলে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা ছাড়াও সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশিরা এতে অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে গান ও নৃত্য পরিবেশন করে উপস্থিত দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন বাংলাদেশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় ব্যান্ড দল ‘শ্রবণ’।

অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ মো. জসিম উদ্দিন, দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর ড. সিরাজুল ইসলাম, কাউন্সিলর কাজী জাবেদ ইকবাল, শ্রম প্রথম সচিব রবিউল ইসলাম, দ্বিতীয় সচিব আজগর হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।