রুহানি-ক্যামেরন ফোনালাপ: দূতাবাস খোলা নিয়ে আলোচনা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি সদ্য সই হওয়া পরমাণু চুক্তি মেনে চলতে ছয় জাতিগোষ্ঠীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। গতকাল (বৃহস্পতিবার) ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে এক টেলিফোন সংলাপে তিনি এ আহ্বান জানান।

পরমাণু আলোচনায় উইন-উইন ফলাফল আসায় আনন্দ প্রকাশ করে প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, দুপক্ষের সব সদস্যের জন্য এখন চুক্তির পরবর্তী ধাপগুলো বাস্তবায়ন করা জরুরি। ইরান ও ছয় জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে মঙ্গলবার চূড়ান্ত চুক্তি সইয়ের দু’দিন পর ইরানের প্রেসিডেন্ট ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন। চুক্তি অনুযায়ী, ইরান তার পরমাণু কর্মসূচি কিছুটা সীমিত করবে, বিনিময়ে ইরানের ওপর থেকে ছয় জাতিগোষ্ঠী নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে।

পরমাণু আলোচনায় ব্রিটেনের গঠনমূলক ভূমিকার জন্য ক্যামেরনের প্রশংসা করে ড. রুহানি বলেন, চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে দুপক্ষের প্রতিশ্রুতি পূর্ণ করা। ইরান ও ব্রিটেনের মধ্যকার সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দু দেশের পারস্পরিক সম্মান ও স্বার্থের ভিত্তিতে এ সম্পর্ক হতে পারে। টেলিফোন সংলাপে সিরিয়া, ইয়েমেন ও আইএসআইএল ইস্যু নিয়েও কথা বলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট।

সংলাপে ডেভিড ক্যামেরন পরমাণু চুক্তি সই হওয়ার জন্য ইরানের প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন জানান। এছাড়া, পরমাণু আলোচনায় গঠনমূলক ভূমিকা রাখার জন্য তিনি ড. রুহানিকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় তিনি নিশ্চয়তা দিয়ে বলেন, ছয় জাতিগোষ্ঠীর সদস্যরা চূড়ান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য সহযোগিতার চেষ্টা করবে।

টেলিফোন সংলাপে প্রেসিডেন্ট রুহানি ও প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ইরান ও ব্রিটেনে নিজ নিজ দেশের দূতাবাস খোলার বিষয়েও আলোচনা করেন।