ভিয়েনায় বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু

2

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় আরিফ ইসলাম (৩৮) নামে এক প্রবাসী বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যুর হয়েছে। আরিফ ব্রেন স্ট্রোক করে চিকিসাৎধীন অবস্থায় মারা যান বলে জানান ভিয়েনা প্রবাসী চাচা আব্দুল ওয়াহেদ। রবিবার রাজধানী ভিয়েনার ডোনাউ হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আরিফ।  নিহত আরিফ নাটোরের বড়াইগ্রামের মৃত আব্দুল ওয়াদুদের ছেলে। ২০১৫ সালে স্টুডেন্ট ভিসায় অস্ট্রিয়াতে যান আরিফ। তার আকষ্মিক মৃত্যুর খবরে কাছের মানুষজন কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

জানা যায়, গত ৮ সেপ্টেম্বর মস্তিষ্ক রক্তক্ষরণ জনিত কারণে ডোনাউ হাসপাতালে ভর্তি হন আরিফ। এরপর থেকে আরিফের জ্ঞান ফেরেনি। দীর্ঘ এক সপ্তাহ মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে হেরে যান প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধা আরিফ ইসলাম। তার মৃত্যুতে বাংলা কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আরিফের মৃত্যুর বিষয়ে চাচা আব্দুল ওয়াহেদ জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর বিকেলে ফোনে কথা বলতে বলতে ব্রেন স্ট্রোক করে আরিফ। ব্যক্তিগত জীবনে আরিফ বিবাহিত এবং এক সন্তানের জনক।

অস্ট্রিয়াতে যাবতীয় কার্যক্রম শেষ করে পরিবারের ইচ্ছা অনুযায়ী আরিফের লাশ দ্রুত দেশে পাঠানো হবে বলে জানান চাচা আব্দুল ওয়াহেদ।