বাংলাদেশ আজ গভীর সংকটে: কানাডা বিএনপি‏

0

প্রবাসী কণ্ঠ ডেস্ক : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল(বিএন পি) কানাডা শাখা আয়োজিত ইফতার মাহফিলে নেত্রীবৃন্দ বলেছেন দেশ এখন গভীর সংকটে। দেশে গনতন্ত্র নেই, মানবাধিকার নেই। বিএনপিকে ধংস করতে আওয়ামী লীগ সরকার নানামুখী চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। নেতৃবৃন্দ খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে উৎখাতের আহ্বান জানান।

গত ১২ জুলাই কানাডার মন্ট্রিয়েলের ৬৭৬৭ কোট দেস নেসস্থ কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টারে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে নেতৃবৃন্দ এ আহ্বান জানান।

স্বেচ্ছাসেবক দল কানাডা শাখার সাধারণ সম্পাদক নাছিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় ও কানাডা বিএনপির সভাপতি ফয়সাল আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে বক্তব্য রাখেন ওসাবের গ্লোবাল কো-অর্ডিনেটোর প্রকৌশলী জুলফিকার আলী হায়দার মুরাদ, কানাডা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক জিয়া, ডেমোক্রেসি ওয়াচ কানাডার সভাপতি আকতার আহমেদ, সাংবাদিক কামরুজ্জামান, কানাডা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনসার উদ্দিন আহমেদ, মন্ট্রিয়ল বিএনপির সভাপতি নাসিরউল্লাহ, জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল কানাডা শাখার সভাপতি এম. জয়নাল আবেদীন জামিল ও সহ-সভাপতি আবদুস সবুর, বাংলাদেশ সোসাইটি অব মন্ট্রিয়েলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান লাবু প্রমুখ।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সাবেক সাংসদ এডভোকেট আলী হোসেন ও শহীদুল ইসলাম, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আবিদ বাহার, কুইবেক বিএনপির সভাপতি শাহজাহান শামীম, বিএনপি নেতা প্রকৌশলী শিহাব উদ্দিন, সোসাইটি অব মন্ট্রিয়েলের নির্বাহী সহ-সভাপতি কামাল চৌধুরী, কানাডা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আখলাকুর রহমান আলমগীর ও জালালুর রহমান, বিএনপি নেতা আকবর হোসেন, তারেক আহমেদ, বিশিষ্ট একাউনটেন্ট জনাব মানিক, জিয়া পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী শাহজাহান কবির সাজু, বিএনপি নেতা কাজী ফেরদাউস, রিয়াজ আহমেদ, এজাজ হান্নান, আমিন তালুকদার প্রমুখ|

সভাপতির বক্তব্যে ফয়সাল চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার বিএনপিকে ধংস করার জন্য নানা চক্রান্ত করছে। খালেদা জিয়া থেকে শুরু করে তৃণমূল পর্যন্ত নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে রেখেছে। এ অবৈধ সরকার দেশের সম্পদ বিদেশে পাচার করছে।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগ, পুলিশ, প্রশাসন থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সীমাহীন দলীয়করণ করা হয়েছে। এভাবে সভ্য কোনো দেশ চলতে পারেনা। বন্দুকের জোরে এই সরকার বেশিদিন টিকতে পারবেনা বলে মন্তব্য করেন তিনি। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের দিকে পুরো জাতি তাকিয়ে রয়েছে। অচিরেই এ সরকারকে বিদায় করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দাউদ হায়দারকে দিয়ে ইসলাম ধর্মের উপর যেভাবে আঘাত হানা হয়, একই ভাবে এবারের পবিত্র রমজান মাসে গাফফার চৌধুরীকে দিয়ে একই কায়দায় ইসলাম ধর্মের উপর আঘাত করা হয়। এরা শুধু ইসলাম ধর্মের নয়, অন্য ধর্মের উপরও একই কায়দায় আঘাত এনেছে। আওয়ামী সরকাররের আগের আমলে রমনার কালী মন্দির ধ্বংস করা হয়।  গাফফার চৌধুরী যা বলেছেন, তাই আওয়ামী লীগের আসল চরিত্র।

ইফতার মাহফিলে মজলুম জিয়া পরিবারের জন্য মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন কুইবেক বিএনপির মুহিম আহমেদ| এছাড়া কোর্আন তেলাঅত করেন ধর্ম বিসয়ক সম্পাদক নুরুল আমিন|