বাংলাদেশে বিনিয়োগের উদার পরিবেশ রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

2

বাংলাদেশে বিনিয়োগের উদার পরিবেশ রয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  বিশ্বের বিনিয়োগকারিদের, বিশেষ করে ভারতের বিনিয়োগকারিদের বাংলাদেশের শিক্ষা, অটোমোবাইল, ও হাল্কা ইঞ্জিনিয়ারিংসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিয়োগের জোরালো আহ্বান জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের ইন্ডিয়া ইকোনোমিক সামিটে প্রধান অতিথির ভাষনে শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বের বিনিয়োগকারিদের এবং ভারতের শিল্পোদ্যোগীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের এটাই উপযুক্ত সময়। তিনি জানান, বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশই সবচেয়ে বিনিয়োগের উদার পরিবেশ দিচ্ছে। বিদেশি বিনিয়োগের আইনি সুরক্ষা, উদার আর্থিক সুবিধা, যন্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে কনসেশন, চলে যাবার সময় পুঁজি ও ডিভিডেন্ড পুরোপুরি বিদেশে নিয়ে যাবার সুবিধা দিচ্ছে। শেখ হাসিনা বলেন, আমরা একশোটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করতে চলেছি। বাংলাদেশে এখন মোট ১২টি অর্থনৈতিক অঞ্চল রয়েছে। এর মধ্যে দু’টি ভারতীয় বিনিয়োগকারিদের জন্য সংরক্ষিত। এছাড়া টেকনোলজি ও ইনোভেটিভ উদ্যোগীদের জন্য হাইটেক পার্ক তৈরি করা হচ্ছে।

এদিন সকালের চারদিনের ভারত সফরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বিশাল এক প্রতিনিধিদল নিয়ে নয়াদিল্লিতে এসে পৌঁছেছেন। পালাম বিমানবন্দরে তাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানান মহিলা ও শিশু কল্যান মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরিসহ সরকারি প্রতিনিধিরা। উপস্থিত ছিলেন ভারতের নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রিভা দাস গাঙ্গুলি দাস। অর্থনৈতিক ফোরামের শুক্রবার সমাপনী অধিবেশন ছাড়াও বিভিন্ন আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতা করার কথা রয়েছে। সিঙ্গাপুরের উপ-প্রধানমন্ত্রী হেং সুই কিয়েট এবং বাংলাদেশ ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশের অনেক মন্ত্রী সম্মেলনের বিভিন্ন অধিবেশনে যোগ দেবেন।