নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী

1

ঢাকা: পদার্থবিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল জয় করেছেন জেমস পিবলস, মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ। এর মধ্যে জেমস পিবলস পেয়েছেন পুরস্কারটির অর্ধেক। আর বাকি অর্ধেক পেয়েছেন মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ; অর্থাৎ চার ভাগের এক ভাগ করে। মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) সুইডেনের স্থানীয় সময় বেলা ১১ টা ৫৫ মিনিটের দিকে (বাংলাদেশ সময় বিকেল প্রায় পৌনে ৪টা) এ বিভাগের নোবেল ঘোষণা করে দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস। রয়্যাল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সেস থেকে পদার্থবিজ্ঞানী নোবেলজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। নোবেল কমিটি বলছে, সৌরজগতের বাইরে একটি গ্রহ আছে, যেটি নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করে অন্যান্য গ্রহের মতোই- যার নাম এক্সোপ্ল্যানেট, এটি আবিষ্কারের জন্য নোবেলের অর্ধেক অংশ যৌথভাবে পেয়েছেন মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ। এছাড়া শারীরিক মহাজাগতিক তাত্ত্বিক আবিষ্কারের জন্য পুরস্কারের দুইভাগের এক ভাগ পেয়েছেন জেমস পিবলস। নোবেলের ওয়েবসাইট বলছে, ১৯৩৫ সালে কানাডায় জন্ম নেওয়া জেমস পিবলস যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞানী। আর ১৯৯২ সালে সুইজারল্যান্ডে জন্ম নেওয়া মিশেল মেয়র জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ। এছাড়া দিদিয়ের কেলোজও সুইজারল্যান্ডের নাগরিক। ১৯৬৬ সালে তার জন্ম। তিনি সুইজারল্যান্ডের জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয় এবং যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞানী। এর আগে সোমবার (০৭ অক্টোবর) মানবদেহের কোষগুলো কীভাবে অক্সিজেনের প্রাপ্যতা উপলব্ধি করে এবং খাপ খায়- এমন আবিষ্কারের স্বীকৃতিতে চিকিৎসাবিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন দুই মার্কিন এবং এক ব্রিটিশ বিজ্ঞানী। তারা হলেন- যুক্তরাষ্ট্রের উইলিয়াম কায়েলিন জেআর ও গ্রেগ এল. সিমেনজা এবং ব্রিটেনের স্যার পিটার জে. রেটকলিফ। এদিকে, বুধবার (০৯ অক্টোবর) আবার রয়্যাল ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সেস থেকে রসায়ন বিজ্ঞানে নোবেলজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি থেকে সাহিত্যে নোবেল দেওয়া হবে। এরপর শুক্রবার (১১ অক্টোবর) নরওয়ের রাজধানী অসলো থেকে নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করবে। সর্বশেষ সোমবার (১৪ অক্টোবর) দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস ঘোষণা করবে অর্থনীতিতে নোবেলজয়ীদের নাম। নোবেলের জন্য এবার মনোনয়ন পেয়েছেন ৩০১ জন বা প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে ৭৮টি প্রতিষ্ঠান। গতবছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সুইডিশ একাডেমি। তখন বলা হয়েছিল, আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে এ বিভাগে একসঙ্গে দুটি পুরস্কার দেওয়া হবে। এর একটি ২০১৮ সালের জন্য, অপরটি ২০১৯ সালের। ইতোমধ্যে জানাও গেছে তা-ই। ১৯০১ সাল থেকে নিয়মিত নোবেল পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা, পদার্থ, রসায়ন, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতি- এ ছয়টি খাতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করে নোবেল কমিটি।